রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ০৫:৪৯ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
কুলাউড়ার গরিবের ডাক্তার খ্যাত বীর মুক্তিযোদ্ধা হাফিজুর রহমান চৌধুরীর ইন্তেকাল কুলাউড়ায় বিদ্যুৎ বিভাগের বিরুদ্ধে মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী দ্বিতীয়বারের মতো জেলার শ্রেষ্ঠ কুলাউড়ার ওসি মোহাম্মদ আলী মাহমুদ কুলাউড়ায় নতুন এসিল্যান্ড শাহ জহুরুল হোসেনের যোগদান কুলাউড়া ইয়াকুব-তাজুল মহিলা ডিগ্রি কলেজের নতুন অধ্যক্ষ সিপার উদ্দিন দক্ষিণবঙ্গে কেন্দ্রীয় কাজী সমিতির সাংগঠনিক সম্পাদক বদরুল হককে সম্মাননা বন্যার ২১ দিনে কুলাউড়া পৌরসভায় ক্ষয়ক্ষতির পরিমান ৫০ কোটি টাকা কুলাউড়ায় প্রশাসনের পক্ষ থেকে বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ অব্যাহত কুলাউড়ায় দ্বিতীয় দফায় বন্যার্তদের মাঝে উপজেলা প্রশাসনের ত্রাণ বিতরণ ২১ জুলাই দ্বিপক্ষীয় সফরে স্পেনে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

কুলাউড়ায় ওয়াকফ সম্পত্তি জবরদখল, গ্রামবাসীর মানববন্ধন

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট : শনিবার, ২৯ জুন, ২০২৪

হাইকোর্টের আদেশকে অমান্য করে ওয়াকফকৃত সম্পত্তিতে নতুন বাড়ী ও সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করে সম্পত্তি জবরদখলের করার অভিযোগ উঠেছে আছেন আখদ্দছ আলী নামের এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে।

 ৭৮ বছর ধরে মনসুর মোহাম্মদিয়া সিনিয়র মাদ্রাসা ও মসজিদ ওয়াকফকৃত সম্পত্তি ভোগ-দখল করে আসছেন। হঠাৎ করে এই সম্পত্তি মৌরশী সম্পত্তি দাবী করায় ক্ষোভে প্রতিবাদ সভা ও মানববন্ধন করেছে গ্রামবাসী।

শুক্রবার দুপুরে মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার কাদিপুর ইউনিয়নের মনসুর মোহাম্মদিয়া সিনিয়র মাদ্রাসার সামনে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে তারা। গ্রামের সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে এলাকার তরুণ সমাজও নিজেদের ব্যানারে মানববন্ধনে যোগ দেয়।

মাদ্রাসার গভনিং বডির সদস্য ও মসজিদ কমিটির যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক সাইফুর রহমানের পরিচালনায় এ সময় বক্তব্যে রাখেন মাদ্রাসার গভনিং বডির সহ-সভাপতি ও ইউপি সদস্য সাতির মিয়া, মসজিদ পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম জহির, সহ-সভাপতি হারুন মিয়া, মাদরাসার গভনিং বডির সদস্য আব্দুল মোহিত বাবলুসহ অনেকে।

গভনিং বডির সহ সভাপতি সাতির মিয়া অবৈধ দখলের প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, ভুমি দস্যু আকদ্দছ আলীর মূলবাড়ী জুড়ী উপজেলার ফুলতলা ইউনিয়নের বটুলি গ্রামে। সে আমাদের মসজিদ ও মাদ্রাসার নামে ওয়াকফ করা প্রায় ৩ একর ৩৭ শতাংশ সম্পতি অবৈধ দখলের চেষ্টায় লিপ্ত। ১৯৪৬ সালে কটু মিয়া, মজর উদ্দিন, আবজা বিবি এই তিনজন ওয়াকফে লিল্লাহ করে যান। দলিলে উল্লেখ করা হয়, এই দলিল পরিবর্তন, পরিবর্ধন, সংশোধন ও সংযোজন করা যাবে না। এই সম্পতির মালিকানা কখনো কেউ দাবী করতে পারবে না। অথচ আজ ভূমি দস্যু আকদ্দছ আলী এই সম্পতির স্বত্ব দাবী করছে । এছাড়া সে আমাদের এলাকার শান্তি শৃংখলা বিনষ্ট করে যাচ্ছে। এলাকার শান্তিপ্রিয় লোকদের ভয়ভীতি ও মামলা মোকদ্দমার ভয় দেখাচ্ছে। এটর্নি জেনারেল আমিন উদ্দিন, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের বিভিন্ন কর্মকর্তার নাম ভাঙ্গিয়ে এলাকার লোকজনদের ভয় ভিতি দেখাচ্ছে। এই ব্যাপারে আমাদের মাননীয় সংসদ সদস্যকে আমরা তার বিষয়টি লিখিত ভাবে অবগত করেছি।

মসজিদ কমিটির সহ সভাপতি হারুন মিয়া তার বক্তব্যে বলেন, গত ২৪/০৪/২০২৪ ইং তারিখ আখদ্দছ আলী ওয়াকফকৃত সম্পতির  মোতওয়াল্লী দাবী করে আদালতে একটি মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নং ৮৪/২০২৪ ।  সেই মামলায় সে নিজেকে মিথ্যা মোতওয়াল্লী দাবি করেছে ? এখন আবার সে মৌরশী স্বত দাবী করছেন কিভাবে ?

মসজিদ পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম জহির বলেন, মসজিদ/মাদরাসার কমিটির লোকেরা সহকারী পুলিশ সুপার ও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার কাছে মোছলেকা দিয়েছে, এমন মিথ্যা গুজব এলাকায় ছড়িয়ে গ্রামের সাধারণ মানুষকে বিভ্রান্ত করছে। সে সরকারের বিরুদ্ধে অপ্রচার চালিয়ে বলছে, ওয়াকফকৃত তৎকালীন আমাদের ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান মক্তব সরকার নাকি বন্ধ করে দিয়েছে। অথচ কোন সরকার আজ পযর্ন্ত কোন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে নি। ওয়াকফকৃত সেই মক্তব আজ সরকারী মাদরাসায় রূপান্তরিত হয়েছে। সেই মাদরাসা গভর্নিং বডি দ্বারা পরিচালিত হয়, বডির সভাপতি এডিসি (অতিরিক্তি জেলা প্রশাসক) । আখদ্দছ আলী গংদের এমন অপ্রচার থেকে সাধারণ মানুষকে বিভ্রান্ত না হওয়ার আহবান জানান ।

এছাড়াও এছাড়াও বক্তরা বলেন, ভুমিদস্যূ আখদ্দছ আলী বিভিন্ন বক্তব্যে নিজে স্বীকার করেছে তার বাবার বাড়ী জুড়ী উপজেলার ফুলতলা ইউনিয়নে । এবং তার মায়ের বাড়ী মসজিদ মাদরাসা ভূমি থেকে ১ কিমি দক্ষিন পূর্বে । অথচ সে যে ওয়াকফকৃত বাড়ীতে অবস্থান করছে, যা মসজিদ মাদরাসা ভুমি থেকে অনুমান মাত্র ৫শ গজ পশ্চিম উত্তরে অবস্থিত । সেখানে সে আইন অমান্য করে ওয়াকফকৃত সম্পত্তি  জবরদখলর করে আছে । গ্রামবাসী ওয়াকফকৃত এই বাড়ীসহ প্রায় ৩ একর ৩৭ শতাংশ সম্পত্তি উদ্ধারে স্থানীয় প্রশাসন সহ সরকারের উধর্তন কতৃপক্ষের সহযোগিতা কামনা করেছেন ।

শেয়ার করুন

আরও পড়ুন
© স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২০ | কেবিসি নিউজ ফ্রান্স
Theme Developed BY NewsFresh